শিরোনাম
প্রথম পাতা / আদিবাসী / ঠাকুরগাঁওয়ে জমি দখলের উদ্দেশ্যে কোচ আদিবাসী পরিবারের উপর হামলা ঃ গুরুতর আহত ৩

ঠাকুরগাঁওয়ে জমি দখলের উদ্দেশ্যে কোচ আদিবাসী পরিবারের উপর হামলা ঃ গুরুতর আহত ৩

প্রতিবেদক শ্রী চন্দন কোচঃ ঠাকুরগাঁও জেলার সদর উপজেলার কালেশ্বরগাও গ্রামের কোচ সম্প্রদায়ের আদিবাসী জগদীশ চন্দ্র বর্মনের পরিবারের উপর হামলা করে আশরাফুল ইসলামের দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত  একটি দল। জগদীশ চন্দ্র বর্মনের জমি দখল ও জমিতে লাগানো বাঁশ জোড়পুর্বক কেটে নেওয়ার সময় বাধা প্রদান করলে প্রাননাশের উদ্দেশ্যে আশারাফুল ইসলাম দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত দল নিয়ে জগদীশ চন্দ্র বর্মনের পরিবারের উপর হামলা করে। হামলায় জগদীশ চন্দ্র বর্মনের স্ত্রী করুনা রাণী(৪৫),  বৃদ্ধা মা নিশি বালা (৮৫) ও ছেলে অপু বর্মন(২০) গুরুতরভাবে আহত হয়। হামলার শিকার হওয়া ব্যাক্তিরা বর্তমানে ঠাকুরগাঁও সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।

উক্ত ঘটনার পরে জগদীশ চন্দ্র বর্মন বাদী হয়ে আশরাফুল ইসলামকে প্রধান আসামী করে ১০ জনের নামে সদর থানায় একটি মামলা করেন। মামলার বিবরণীতে তিনি উল্লেখ্য করেন , দীর্ঘ দুই-তিন মাস ধরে আসামীরা নানা ভাবে জগদীশ চন্দ্র বর্মনের পরিবারের উপর অত্যাচার ও অহেতুক নিপিড়ন হুমকি-ধামকি দিয়ে আসছিল। গত ৫ ই মার্চ, ২০২১ এ জগদীশ চন্দ্র বর্মনের মেয়ের বিয়ে অনুষ্ঠানেও আসামীরা বাধা প্রদান করেন ও ঝামেলা সৃষ্টি করেন এবং পূর্বপরিকল্পিতভাবে  ১৬ ই মার্চ, ২০২১ আনুমানিক সকাল ১১.৩০ নাগাদ আসামিরা  জগদীশ চন্দ্র বর্মনের জমি দখল ও বাঁশ কেটে নেওয়ার চেষ্ঠা চালায়,  এতে বাধা প্রদান করলে আসামীরা দল-বলসহ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে জগদীশ চন্দ্র বর্মনের পরিবারের উপর হামলা করে জগদীশ চন্দ্র বর্মনের স্ত্রী করুনা রাণী (৪৫),  বৃদ্ধা মা নিশি বালা (৮৫) ও  ছেলে অপু বর্মন(২০) কে গুরুতরভাবে আহত করে। এসময়  নেন্দ বর্মন, ফুলফুলি রাণী, আবুল কালাম আজাদ সহ স্থানীয় এলাকাবাসী এগিয়ে আসলে আসামীরা ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন এবং যাওয়া সময় জনসন্মুখে হুমকি দেন, “আজকে তোমরা প্রাণে বেচে গেলা, আরেকদিন সুযোগ পেলে তোমাদের কুপিয়ে হত্যা করে মাটির ভিতর পুতে রেখে যাব।”

এ ব্যপারে বাংলাদেশ কোচ আদিবাসী ইউনিয়ন এর ঠাকুরগাও জেলার সাধারণ সম্পাদক মৃত্যুঞ্জয় বর্মন আপেল জানান, ক্ষমতা ও জোড় খাটিয়ে দীর্ঘদিন ধরে আসামীরা সাম্প্রদায়িক ভাবে উস্কানি সৃষ্টি ও ভিক্টিমের জমি ও বাশ দখল করার জন্য চেষ্ঠা চালাচ্ছিল। আজ উনাদের বাধা প্রদান করলে, উনারা আমাদের পরিবারটির উপর হামলা করেন। আমরা আসামীদের সর্বোচ্চ শাস্তি দাবী করছি। বাংলাদেশ কোচ-রাজবংশী-বর্মন সংগঠনের সদর উপজেলা শাখার সভাপতি পরিমল চন্দ্র বর্মন জানান, আমাদের পরিবারটির উপর যা হয়েছে তা কোন ভাবেই মেনে নেওয়ার মত না। আমরা ইতিমধ্যে প্রশাসনের সাথে বিস্তারিত কথা বলেছি এবং প্রশাসনকে ২৪ ঘন্টার আলটিমেটাম দিয়েছি, এর মধ্যে আসামী গ্রেপ্তার না হলে আমরা আমাদের সংগঠন থেকে কঠিন কর্মসুচী ঘোষনা করবো।

Facebook Comments
Print Friendly, PDF & Email

এক নজরে

ঝিনাইগাতীতে আদিবাসী নারী ধর্ষণের অভিযোগে একজন গ্রেফতার

আচিক নিউজ ডেস্ক : শেরপুরের ঝিনাইগাতীতে এক আদিবাসী নারীকে ধর্ষণের অভিযোগে মো. নাঈম (১৯) নামে এক …

error: Content is protected !!